শুক্রবার ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অস্তিত্ব সঙ্কটে ১০ কোম্পানি: আকাশচুম্বী ৬ কোম্পানির শেয়ার দর

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ০৮ আগস্ট ২০২১ | 5695 বার পঠিত | প্রিন্ট

অস্তিত্ব সঙ্কটে ১০ কোম্পানি: আকাশচুম্বী ৬ কোম্পানির শেয়ার দর

অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১০ কোম্পানি। কোম্পানিগুলো হলো- জিলবাংলা সুগার, জুট স্পিনার্স, আজিজ পাইপস, শ্যামপুর সুগার, দুলামিয়া কটন, মেঘনা পেট, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, বিআইএফসি এবং আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক। সম্পদহীন, ঝুঁকিপূর্ণ ও ধারাবাহিক লোকসান সত্বেও এর মধ্যে আকাশচুম্বী দরে লেনদেন হচ্ছে ৬ কোম্পানির শেয়ার। এগুলো হলো- জিলবাংলা সুগার, জুট স্পিনার্স, শ্যামপুর সুগর, দুলামিয়া কটন, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক এবং মেঘনা পেট। সবগুলো কোম্পানিরই পিই রেশিও নেগেটিভ, যার বিনিয়োগের জন্য বিবেচিত। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি দরে লেনদেন হচ্ছে জিলবাংলার শেয়ার দর। গত ৫ আগস্ট এ কোম্পানির শেয়ার দর ১৪৫ টাকা ১০ পয়সায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ৭০১ টাকা ৪৬ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ১৯ টাকা ৩৬ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১৭ টাকা ৫০ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ১০ টাকা ২৭ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৬ কোটি টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ৪২৬ কোটি ৮৮ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ৬০ লাখ শেয়ারের মধ্যে ৩৬.৭৩ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ৫ বছরের কোম্পানিটির কোনো ডিভিডেন্ড দেয়নি।

অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে-

গত ৫ আগস্ট জুট স্পিনার্সের প্রতিটি শেয়ার ১৪০ টাকায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ১৪৭ টাকা ৪৪ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ১১ টাকা ১৬ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১১ টাকা ১৬ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ১১ টাকা ৫১ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন এক কোটি ৭০ লাখ টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ২৬ কোটি ৭৭ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ১৭ লাখ শেয়ারের মধ্যে ৩৬.৯৮ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ২০১২ সালে সর্বশেষ ২০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়েছিল। এরপর কোম্পানিটি কোনো ডিভিডেন্ড দেয়নি।

গত ৫ আগস্ট আজিজ পাইপসের প্রতিটি শেয়ার ১১২ টাকা ৮০ পয়সায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ১৪ টাকা ৪২ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ৭ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ৪ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ৩৭ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৫ কোটি ৩৪ লাখ ৩৭ হাজার টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ২৩ কোটি ৬২ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ৫৩ লাখ ৪৭ হাজার ১২৫টি শেয়ারের মধ্যে ৭১.১৮ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত বছরের কোম্পানিটি এক শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়েছে।

গত ৫ আগস্ট শ্যামপুর সুগারের প্রতিটি শেয়ার ৬৩ টাকায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ৯৮৯ টাকা ৩৭ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ২৫ টাকা ১৫ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ২৫ টাকা ১৫ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ২৮ টাকা ৪৮ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৫ কোটি টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ৪৯৯ কোটি ৭৭ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ৫০ লাখ শেয়ারের মধ্যে ৪৮.০৬ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ৫ বছরের কোম্পানিটির কোনো ডিভিডেন্ড দেয়নি।

গত ৫ আগস্ট দুলামিয়া কটনের প্রতিটি শেয়ার ৫১ টাকা ১০ পয়সায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ৩৬ টাকা ২৫ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ১৯ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১৪ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ১৩ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৭ কোটি ৫৫ লাখ ৭৭ হাজার টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ৩৪ কোটি ৯৫ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ৭৫ লাখ ৫৬ হাজার ৬০০টি শেয়ারের মধ্যে ৬২.০৯ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ৫ বছরের কোম্পানিটির কোনো ডিভিডেন্ড দেয়নি।
গত ৫ আগস্ট মেঘনা পেটের প্রতিটি শেয়ার ১৬ টাকা ৪০ পয়সায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ৪ টাকা ২২ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ৭ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ৭ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ৬ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ১২ কোটি টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ১৭ কোটি ৬ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ১২ লাখ শেয়ারের মধ্যে ৫০.০০ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ৫ বছরের কোম্পানিটির কোনো ডিভিডেন্ড দেয়নি।
গত ৫ আগস্ট মেঘনা কনডেন্সড মিল্কের প্রতিটি শেয়ার ১৫ টাকায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ৫৯ টাকা ৫৫ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ২ টাকা ৪ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে এক টাকা ৯৫ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে এক টাকা ২৯ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ১৬ কোটি টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ১১১ কোটি ২৭ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ১৬ লাখ শেয়ারের মধ্যে ৫০.০০ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ৫ বছরের কোম্পানিটির কোনো ডিভিডেন্ড দেয়নি।

গত ৫ আগস্ট ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের প্রতিটি শেয়ার ৮ টাকা ২০ পয়সায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ১১৩ টাকা ৬৩ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ৪ টাকা ৪২ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ২ টাকা ৯৬ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ৪শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ২২১ কোটি ৮১ লাখ টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ২ হাজার ৭৪২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ২২ কোটি ১৮ লাখ ১০ হাজার ২৪৬টি শেয়ারের মধ্যে ৩২.৭৪ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ২০১৮ সালে কোম্পানিটি ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছিল।

গত ৫ আগস্ট বিআইএফসি’র প্রতিটি শেয়ার ৬ টাকা ৯০ পয়সায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ৬৬ টাকা ৪০ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে এক টাকা ৭১ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ২ টাকা ৭ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে এক টাকা এক পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ১০০ কোটি ৬৭ লাখ ৯০ হাজার টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ ৭৬৯ কোটি ২০ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ১০ কোটি ৬ লাখ ৭৯ হাজার ৯৪৪টি শেয়ারের মধ্যে ১৭.৪৮ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ২০১৩ সালে কোম্পানিটি ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছিল।

গত ৫ আগস্ট আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকের প্রতিটি শেয়ার ৪ টাকা ৯০ পয়সায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য লোকসান ১৭ টাকা ৫৪ পয়সা। গত তিনটি প্রান্তিকেই কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম প্রান্তিকে ১৫ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১৭ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ০ পয়সা শেয়ারপ্রতি লোকসান দেখিয়েছে। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৬৬৪ কোটি ৭০ লাখ ২০ হাজার টাকা ও পুঁঞ্জিভুত লোকসানের পরিমাণ এক হাজার ৮৩০ কোটি ৬৩ লাখ টাকা এবং কোম্পানিটির ৬৬ কোটি ৪৭ লাখ ২ হাজার ৩০০টি শেয়ারের মধ্যে ২৪.৭২ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে। গত ৫ বছরের কোম্পানিটির কোনো ডিভিডেন্ড দেয়নি।

শেয়ারবাজার২৪

Facebook Comments Box

Posted ২:৪১ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ০৮ আগস্ট ২০২১

sharebazar24 |

আর্কাইভ

রবি সোম মঙ্গল বু বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১৩
১৫১৬১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
৩০৩১  
মো. সিরাজুল ইসলাম সম্পাদক
মো. মহসিন হোসেন উপদেষ্টা সম্পাদক
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

৬০/১, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০

হেল্প লাইনঃ 01742-768172

E-mail: [email protected]